প্রতিদান কবিতা ও ব্যাখ্যা পিডিএফ ডাউনলোড

প্রতিদান কবিতা ও কবিতার ব্যাখ্যা জানতে সম্পূর্ণ পোস্ট টি পড়ুন। প্রতিদান কবিতাটি কবি জসীমউদ্দীন লিখেছেন। তার সকল কবিতার মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় একটি কবিতা এটি। প্ততিদান কবিতাটি কবি জসীমউদ্দীন এর ‘বালুচর’ কাব্যগ্রন্থ থেকে সংকলিত হয়েছে। এই কবিতায় কবি প্রকিত সুখ ও জীবনের সার্থকতা নিহিত সেই আলোকপাত বর্ননা করেছেন। কবিতায় কবি অনিষ্টকারিকে কেবল ক্ষমা করেই নয়, বরং প্রতিদান হিসেবে অনিষ্টকারীর উপকার করার মাধ্যমে পৃথিবীকে সুন্দর  বাসযোগ্য করতে চেয়েছেন।

অনেকে হয়তো কবিতাটি পড়তে চেয়েছেন। নিচে তাদের জন্য কবিতাটি দেওয়া আছে। আপনারা কবিতাটি পিডিএফ ডাউনলোড করতে পারবেন। সম্পূর্ণ কবিতাটি আমাদের পোস্টে ব্যাখ্যা করে দেওয়া আছে। এজন্য আজকের পোস্ট টি শেষ পর্যন্ত পড়বেন। তাহলে চলুন পোস্ট টি শুরু করা যাক।

প্রতিদান কবিতা

এখানে কবিতাটি দেওয়া আছে। আপনাদের জন্য আমরা সম্পূর্ণ কবিতা উপস্থাপন করেছি। যাদের কবিতাটি পড়ার আগ্রহ রয়েছে। তারা নিচে থেকে পড়ে নিবেন।

প্রতিদান
জসীমউদ্দীন

আমার এ ঘর ভাঙিয়াছে যেবা আমি বাধি তার ঘর,
আপন করিতে কাঁদিয়া বেড়াই যে মােরে করেছে পর ।
যে মােরে করিল পথের বিরাগী
পথে পথে আমি ফিরি তার লাগি ,

দীঘল রজনী তার তরে জাগি ‘ ঘুম যে হরেছে মাের;
আমার এ ঘর ভাঙিয়াছে যেবা আমি বাধি তার ঘর।
আমার এ কূল ভাঙিয়াছে যেবা আমি তার কূল বাঁধি ,
যে গেছে বুকেতে আঘাত হানিয়া তার লাগি আমি কাঁদি ।

যে মােরে দিয়েছে বিষে – ভরা বাণ ,
আমি দেই তারে বুকভরা গান ;
কাটা পেয়ে তারে ফুল করি দান সারাটি জনম – ভর ,
আপন করিতে কাঁদিয়া বেড়াই যে মােরে করেছে পর ।
মাের বুকে যেবা কবর বেঁধেছে আমি তার বুক ভরি’

রঙিন ফুলের সােহাগ – জড়ান ফুল মালঞ্চ ধরি ।
যে মুখে সে নিঠুরিয়া বাণী ,
আমি লয়ে করে তারি মুখখানি ,
কত ঠাই হতে কত কী যে আনি ‘ সাজাই নিরন্তর
আপন করিতে কাঁদিয়া বেড়াই যে মােরে করেছে পর ।

প্রতিদান কবিতার কবি পরিচিতি

জসীম উদ্‌দীন (১ জানুয়ারি ১৯০৩ – ১৩ মার্চ ১৯৭৬) একজন বাঙালি কবি, গীতিকার, ঔপন্যাসিক ও লেখক। ‘পল্লীকবি’ উপাধিতে ভূষিত, জসীম উদ্‌দীন আবহমান বাংলার সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যে লালিত প্রথম পূর্ণাঙ্গ আধুনিক কবি।[১][২] ঐতিহ্যবাহী বাংলা কবিতার মূল ধারাটিকে নগরসভায় নিয়ে আসার কৃতিত্ব জসীম উদ্‌দীনের।[৩] তার নকশী কাঁথার মাঠ ও সোজন বাদিয়ার ঘাট বাংলা ভাষার গীতিময় কবিতার উৎকৃষ্টতম নিদর্শনগুলোর অন্যতম।[৪] তার কবিতা বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে।[৫][৬] তার লেখা অসংখ্য পল্লিগীতি এখনো গ্রাম বাংলার মানুষের মুখে মুখে শোনা যায়। যথা:- আমার হার কালা করলাম রে, আমায় ভাসাইলি রে, বন্ধু কাজল ভ্রমরা রে ইত্যাদি।

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষিত জসীম উদ্‌দীন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫ বছর শিক্ষকতা করেন;[৫] ১৯৪৪ সালে শিক্ষকতা ছেড়ে তিনি বঙ্গীয় প্রাদেশিক সরকার এবং পরে পূর্ব পাকিস্তান সরকারের প্রচার বিভাগের কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন এবং ১৯৬২ সালে অবসরগ্রহণ করেন। জসীম উদ্‌দীন ছিলেন প্রগতিশীল ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার অধিকারী এবং সমাজতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থার একজন দৃঢ় সমর্থক।[৫] তিনি ছিলেন পূর্ব পাকিস্তানের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা।[৫]

প্রতিদান কবিতা ও ব্যাখ্যা পিডিএফ ডাউনলোড

আশা করছি আপনারা সবাই কবিতাটি পরেছেন। আপনারা চাইলে এই কবিতাটি পিডিএফ ফাইলে সংগ্রহ করতে পারবেন। কবিতাটি সংগ্রহ করার জন্য একটি পিডিএফ লিঙ্ক দেওয়া আছে। এই লিঙ্ক থেকে কবিতাটি ডাউনলোড করতে পারবেন। তো যারা যারা কবিতাটি পিডিএফ ডাউনলোড করতে চান তারা নিচে থেকে পিডিএফ ডাউনলোড করে নিবেন।

 পিডএফ  ডাউনলোড

প্রতিদান কবিতার mcq প্রশ্ন ও উত্তর পিডিএফ ডাউনলোড

অনেকে প্রতিদান কবিতার mcq প্রশ্নের উত্তর পিডিএফ ডাউনলোড করতে চান। তারা নিচে থেকে এগুলো পিডিএফ ডাউনলোড করতে পারবেন। নিচে একটি লিঙ্ক দেওয়া আছে। এই লিঙ্ক থেকে সরাসরি পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করুন।

 পিডএফ  ডাউনলোড

প্রতিদান কবিতার সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

নিচে আপনাদের জন্য আরও কিছু প্রতিদান কবিতার সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর দেওয়া আছে। এগুলো আপনারা পিডিএফ ডাউনলোড করতে পারবেন। যারা যরা এই কবিতা থেকে সকল ধরনের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর সংগ্রহ করতে চান তারা নিচে দেওয়া প্রশ্ন গুলো দেখেনিবেন।

 পিডএফ  ডাউনলোড

শেষ কথা

আশা করছি এই পোস্ট টি আপনাদের কাছে ভালোলেগেছে। এই পোস্ট টি ভালোলেগে থাকলে শেয়ার করতে পারেন। আশা করছি এই পোস্ট থেকে প্রতিদান কবিতা পিডিএফ করতে পেরেছেন। এই রকম আরও ভালো ভালো পোস্ট পেতে আমাদের সাথেই থাকবেন। আমাদের সাথে শেষ পর্যন্ত থাকার জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *